November 17, 2019

চাঁদপুর শাহরাস্তিতে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় আটক-২

chandpur--pic-2

এ কে আজাদ, চাঁদপুর : চাঁদপুরের কচয়ায়ু বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এক মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে ২জনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার ভোরে উপজেলার আমুজান এলাকার বাগান বাড়ী থেকে তাদেরকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে সোর্পদ্য করে এলাকাবাসী। ধর্ষিতা মেয়েটি শাহরাস্তি উপজেলার মেহের উত্তর ইউনিয়নের জমির হোসেনের মেয়ে। এদিকে এ ঘটনার পর ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে শাহরাস্তি থানায় ধর্ষণের অভিযোগ এনে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

আটককৃতরা হলো- কচুয়া উপজেলার চন্দিয়াপাড়া গ্রামের মোল্লা বাড়ীর মৃত ইব্রাহীম মোল্লার ছেলে জিহাদ (১৯) এবং একই উপজেলার আমুজান গ্রামের মৃত জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে ফাহিম (২১)। ফাহিম পেশায় সিএনজি চালক।

মামলায় ধর্ষিতার মা ফেরদৌস বেগম অভিযোগ করেন, আমার মেয়ে সেহরী খাওয়ার পর ভোরে বাড়ীর আঙ্গিনায় আম কুড়াচ্ছিল। কিন্তু ফজরের নামাজের পরেও তাকে না পেয়ে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করি। অবশেষে ফজরের নামাজ শেষে বাড়ি যাাওয়ার পথে মুসুল্লিরা পাশর্^বর্তী কচুয়া উপজেলার আমুজান এলাকার বাগান বাড়ীতে একটি মেয়েকে বিব¯্র অবস্থায় কাঁদতে দেখে। এসময় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা জিহাদ(১৯) নামে এক যুবককে সন্দেহ হলে তাকে আটক করে গণধোলাই দেয় মুসুল্লিরা। পরে জিহাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বাগানের ভেতর থেকে সিএনজি চালক ফাহিম (২১) কে আটক করে ধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ্য করে।

আটক জিহাদ জানায়, ফাহিম ওই মেয়েকে আম কুড়াতে দেখে আমাকে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে মেয়েটিকে মুখে কাপড় বেঁধে সিএনজিতে করে কচুয়া উপজেলার আমুজান বাগানে নিয়ে ধর্ষন করে।

শাহরাস্তি থানার ওসি মো. শাহ আলম (এলএলবি) জানান, এ ঘটনায় শাহরাস্তি থানায় মেয়ের মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। আটক ২ ধর্ষককে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে ভিকটিমের ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য চাঁদপুরে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

Related posts